IELTS-পরীক্ষা দিতে চাইলে নিচের তথ্যগুলো জানতেই হবে !

প্রথমেই একটা জিনিস জেনে রাখা ভালো যে, IELTS পরিক্ষায় পাশ বা ফেল বলতে আসলে কোনো জিনিস নাই।

প্রথমেই চলুন জেনে নেই IELTS -কি?
International English Language Testing System কেই সংক্ষেপে IELTS বলা হয়। মূলত IELTS হচ্ছে ইংরেজি ভাষায় একজন শিক্ষার্থীর পারদর্শিতা নিরীক্ষণের একটি ব্যবস্থা। অর্থাৎ ইংরেজি যাদের মাতৃভাষা নয় এমন শিক্ষার্থদের জন্য ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা যাচাই করা হয়ে থাকে এই পরীক্ষার মাধ্যমে।

IELTS-এ সর্বনিম্ন ব্যান্ডস্কোর হচ্ছে 1 এবং সর্বোচ্চ ব্যান্ডস্কোর হচ্ছে 9। অর্থাৎ IELTS-পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করলে আপনার ব্যান্ডস্কোর ১ থেকে ৯ এর মধ্যে-ই থাকবে।
IELTS পরীক্ষাটি মোট চারটি সেকশন এর উপর হয়।
Listening,Reading, Writing and Speaking
IELTS-পরিক্ষার রেজাল্ট এর অর্থাৎ ব্যান্ডস্কোর এর মেয়াদ থাকে ২ বছর। অর্থাৎ আপনার যেদিন রেজাল্ট হবে ওইদিন থেকে ২ বছর পর্যন্ত আপনার রেজাল্ট এর Validity থাকবে।

IELTS-পরিক্ষা ২ ধরনেরঃ
Academic এবং General Training. General Training-টিকে সংক্ষেপে GT-বলা হয়।
ইংরেজি ভাষা প্রধান দেশে যদি কেউ অভিবাসন অর্থাৎ migration-করতে চান, কিংবা কোনো Training-নিয়ে চাকুরি করতে যান, তাহলে তাকে General Training-অর্থাৎ IELTS-GT দিতে হবে।
দুটি Module-এ-ই কিন্তু চারটি সেকশন, অর্থাৎ, Listening,Reading, Writing এবং Speaking থাকবে।
Academic কিংবা General Training আপনি যে Module-এই পরিক্ষা দেন না কেনো Listening এবং speaking একই রকম পরিক্ষা হবে ভিন্নতা থাকবে শুধু Reading এবং Writing-এ ।
Listening, Reading এবং Writing পার্ট এর পরিক্ষা হবে একই দিনে এবং এই পার্ট গুলোর মধ্যে কোনো break থাকবে না। আর Speaking- পরিক্ষাটি একই দিনে হতে পারে কিংবা কিংবা Listening, Reading এবং Writing পার্ট এর আগে পরেও হতে পারে, এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৭ দিনের মধ্যেই হবে। Speaking-টেস্ট- টি ঠিক কবে হবে তা আপনি যে সেন্টার এ পরিক্ষা দিবেন তারা আপনাকে জানিয়ে দিবে।
Listening-এ সময় দেওয়া হয় ৩০ মিনিট,Reading-এ ৬০ মিনিট, Writing -এ ৬০ মিনিট, Speaking-এ ১১ থেকে ১৪ মিনিট। সুতরাং সব মিলিয়ে মোট পরীক্ষার সময় হচ্ছে ২ ঘন্টা ৪৫ মিনিট।
আমি একে একে ধারাবাহিকভাবে IELTS-এর সবগুলো Part নিয়ে আলোচনা করছিঃ

আসুন প্রথমেই জানা যাক Listening-সম্পর্কেঃ
01.Listening
Listening এ পর পর মোট চারটি সেকশন থাকবে। এই চারটি সেকশন এর জন্য মোট সময় দেওয়া হবে ৩০ মিনিট। ৩০ মিনিট শেষ হওয়ার পর আপনাকে আরো ১০ মিনিট দেওয়া হবে উত্তরপত্রে সঠিক উত্তরটি লেখার জন্য। যেহেতু উত্তরপত্রে লেখার জন্য আপনাকে আলাদা সময় দেওয়া হবে তাই যখন আপনি Listening-করবেন তখন উত্তরগুলো আপনি পরে নিজে বুজবেন এইরকম রাফ করে লিখে রাখবেন। সাধারনত শুরুর দিকে সহজ এবং শেষের দিকে কঠিন-এই ক্রমানুসারে প্রস্নগুলো । প্রতিটি সেকশন এ ১০টি করে মোট ৪০টি প্রশ্ন থাকবে। Listening-অংশে সাধারণত মোট ছয় ধরনের প্রশ্ন থাকে, এগুলো হচ্ছেঃ
Task type 1 – Multiple choice
Task type 2 – Matching
Task type 3 – Plan, map, diagram labelling
Task type 4 – Form, note, table, flow-chart, summary completion
Task type 5 – Sentence completion
Task type 6 – Short-answer questions
এখানে উল্লেখ্য যে, বানান ভুল আর গ্রামাটিকেল ভুল এর জন্য মার্কস কাটা যাবে তাই খুব খেয়াল করে উত্তরপত্রে উত্তরগুলো লিখতে হবে। প্রতিটি প্রশ্নের জন্য ১ মার্ক করে বরাদ্দ থাকবে। অর্থাৎ ৪০ টি প্রশ্নের জন্য ৪০ মার্কস। একজন পরিক্ষার্থি এই ৪০ মার্কস মধ্যে যত পায় তা পরে ব্যান্ড স্কোর এ কনভার্ট করা হয়।
02. IELTS Academic Reading:
Reading-: অংশে মোট সময় দেওয়া হবে ৬০ মিনিট। প্যাসেজ থাকবে মোট তিনটি । এই তিনটি প্যাসেজ থেকে মোট ৪০টি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে।
Task type 1 – Multiple choice
Task type 2 – Identifying information
Task type 3 – Identifying writer’s views/claims
Task type 4 – Matching information
Task type 5 – Matching headings
Task type 6 – Matching features
Task type 7 – Matching sentence endings
Task type 8 – Sentence completion
Task type 9 – Summary, note, table, flow-chart completion
Task type 10 – Diagram label completion
Task type 11 – Short-answer questions
03. IELTS Academic Writing Section:
Writing: মোট সময় ১ ঘন্টা। এই সময়ের মধ্যে আপনাকে ২ টি Writing Task- লিখতে হবে।
Task 1:
১ম টিতে থাকবে ১ টি graph, table, chart কিংবা diagram। এখানে আপনাকে এই graph, table, chart কিংবা diagram টি ব্যাখা করে বুঝাতে হবে।
Task 2:
২য় টিতে আপনাকে কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর কিংবা একটি Argumentative-ধর্মী লেখা আপনাকে লিখতে হবে।
১ম সেকশন এর চাইতে ২য় সেকশন টি কিছুটা কঠিন। আর ২য় সেকশন এ ভালো করার জন্য আপানকে জানতে হবে কিভাবে ইংরেজি রচনা লিখতে হয় ।
4. Speaking Test:
১১ থেকে ১৪ মিনিটের Speaking Test-মূলত তিনটি অংশে বিভক্ত। মনে রাখবেন আপনার Speaking Test-কিন্তু রেকর্ড করা হবে।
Part 1: ১ম অংশে আপনার নাম-ধাম পরিচয়, কুশল বিনিময় এবং আপনার পরিচিত কোনো সহজ বিষয় নিয়ে কথাবার্তা বলবে। ব্যাপারটি অনেকটা ইনফর্মাল মনে হলেও আসলে এটি কিন্তু আপনার পরিক্ষার-ই মূল একটা অংশ
Part 2: ২য় অংশে আপনাকে একটা কার্ড দিবে এবং কার্ডে একটা টপিক লেখা থাকবে যার উপর ভিত্তি করে আপনাকে ২ মিনিট কথা বলতে হবে। তবে টপিকের উপর প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আপনাকে ১ মিনিট সময় দেওয়া হবে। এই এক মিনিট আপনি নিজেকে তৈরি করার জন্য সময় পাবেন। আপনি যাতে আপান্র কথাগুলো ঠিকমতো শেষ করতে পারেন সে জন্য পরিক্ষক আপনাকে ২/১ টি প্রশ্নও করতে পারে।
Part 3: ৩য় অর্থাৎ সর্বশেষ অংশে পরীক্ষক আপনাকে আগের কথার সুত্র ধরে আরো কিছু প্রশ্ন করবেন এবং আপনাকে আরো কথা বলার জন্য সুযোগ তৈরি করে দিবেন। এখানে আপনি ৪ থেকে ৫ মিনিট কথা বলার জন্য সময় পাবেন। অর্থাৎ পার্ট-৩ শেষ হয় সাধারণত চার থেকে পাঁচ মিনিটের মধ্যেই।

Post a Comment

0 Comments